fbpx

১৩ কেনো অশুভ ?

প্রাচীন আমল থেকে ১৩ কে অশুভ সংখ্যা বলা হয় । অনেক ধর্ম এবং মতানুবাদ অনুযায়ী ১৩ সংখ্যাটিকে অশুভ বলার কিছু নির্দিষ্ট কিছু কারন আছে । সেই সকল নির্দিষ্ট কারণগুলোর মধ্যে সবচে গ্রহণীয় কারণগুলো উল্লেখ্য করা হলঃ

 

  • শেষ খাবার (The last supper) : এইটা উল্লেখ্য যে যীশু খৃষ্ট কে শেষ খাবারের সময় যে শেষ এবং ১৩ তম ব্যক্তি উপস্থিত ছিলেন যার নাম জুডাস -এবং পরবর্তিতে তিনি যিশু’র সাথে বেইমানি করেন ।
  • দেবতার অনাকাঙ্খিত উপস্থিতিঃ কথিত আছে সবচে মূল্যবান একটি ভোজসভায় আমন্ত্রিত না হওয়ার পরেও দেবতা লকি ১৩ তম দেবতা সেখানে উপস্থিত হন এবং যার ফল স্বরূপ অনেক দেবতাগনের মৃত্যু হয় এছাড়াও পৃথিবীতে প্রাকৃতিক দুর্যোগ নেমে আসে।
  • ফাঁসির দড়িঃ প্রথা অনুযায়ী প্রচলিত আছে যে ফাঁসির কাঠে , ফাঁসির দড়িকে ১৩ বার পেঁচাতে হয়। আসলে ৮বার পেঁচান হয়।
  • এপোলো ১৩ঃ একমাত্র এপোলো ১৩ চন্দ্রযানটি ব্যর্থ হবার কারন হিসাবে ১৩ সংখ্যাকে দায়ী করা হয় । আসলে অক্সিজেন ট্যাঙ্কটি বিস্ফোরণের কারনে অভিযানটি ব্যর্থ হয়। কিন্তু পরবর্তীতে সবাই নিরাপদে ফিরে আসেন।
  • অক্টোবর ১৩, ১৩০৭ সালঃ এসময় একটি ভয়াবহ ঘটনা ঘটে নাইট টেম্পলার কে মেরে ফেলা হয় এবং লন্ডন শহরে গনহারে গ্রেফতার করা হয়।
  • বয়স ১৩ঃ বয়স ১৩তে বেশিরভাগ বাচ্চাদের বয়ঃসন্ধি হয় এই সময়টাকে একটা দুর্যোগপূর্ণ সময় মনে করা হয় এছাড়াও পশ্চিমা দেশে বয়স ১৩ তে ডাইনি সভায় যোগদানের আদর্শ সময় মনে করা হয় ।
  • ১৩ অক্ষরের নামঃ ধারনা করা হয় কারো নামে যদি ১৩ অক্ষর থাকে তাইলে সে শয়তানের দোসর কারন হিসাবে সিরিয়াল কিলারদের নাম উল্লেখ্য করা হয় । যেমনঃ Charles Manson , Jack The Ripper, Jeffrey Dahmer ইত্যাদি।
  • সংখ্যাতত্ত্বঃ সংখ্যাতত্ত্ব অনুযায়ী ১৩ কে লোভ এবং মন্দ ভাগ্য বলা হয় কারন ১২ কে সঠিক এবং উচ্চ এর সাথে তুলনা করা হয় আর ১৪কে সৌভাগ্যের সংখ্যা ৭ এর দ্বিগুণ এইজন্য অত্যন্ত ভাল মনে করা হয়।
  • সিক্রেট টিমঃ এইটা পৃথিবীর সবচে রহস্যজনক একটি গোপন গ্রুপ। যাদের সম্পর্কে একদম কোন কিছুই তেমন জানা যায় না। কিন্তু বলা হয়ে থাকে এই গ্রুপটি আমেরিকার প্রেসিডেন্ট থেকে শুরু করে অনেক কিছুকে নিয়ন্ত্রন করে। এই গ্রুপটি একটি নির্দিষ্ট মাসের ১৩ তারিখে ১৩জন্য সদস্য নিয়ে একটি খাবার টেবিলে বসেন এবং একটি নির্দিষ্ট সময়ের ১৩মিনিটে একটি প্রস্তাব উপস্থাপনা করেন যা নিয়ে সব্বাই মতামত প্রকাশ করে। এবং এই ১৩ জনের একজন কে বছরের শেষে মেরে ফেলা হয়।

 

অশুভ ১৩ নিয়ে আরো কিছু তথ্যঃ

  • ১৩ সংখ্যা নিয়ে পশ্চিমাদের মধ্যে এতটাই ভিতি কাজ করে যে তারা অনেক সময় হোটেলের ১৩ নম্বর কক্ষে থাকতে চান না তাই বেশির ভাহ হোটেলের ১৩ নম্বর কক্ষকে হোটেলের ব্যবহার্য্য জিনিষ দিয়ে ভরিয়ে রাখা হয়।
  • অনেক সময় দামি কোন রেস্তোরাঁয় ১৩ জন অথিতি হয়ে গেলে ১৪ নম্বর অথিতি হিসাবে একজন পুতুল মানব কে চেয়ারে বসিয়ে রাখা হয় যাতে কোন অঘটন না ঘটে। অথবা খাবার টেবিলে লবন ছিটিয়ে দেয়া হয়।
  • আবার হোটেলে কোন রাতে যদি ১৩ জন অথিতি রাত কাটায় তবে হোটেল ম্যানেজার নিজ খরচে রাস্তার কোন একজন কে হোটেলে রাখেন রাত কাটানোর জন্য।
  • ১৩ নম্বর বাড়ির পরে কোন রাস্তার মোড় তৈরি করা হয় না। সিঁড়িতে কখন ১৩টি ধাপ বানানো হয়না।

 

এসকল কিছু প্রচলিত থাকলেও ১৩ আসলে একটি নিছক সংখ্যা মাত্র। এর ভালো মন্দ খারাপ দিকপাশ বিবেচনা করা আসলে একদমই গুরুত্বহীন । হয়ত কিছু কারণে ১৩ কে অশুভ বলা হয়। কিন্তু যাই হোক না কেনো, আপনার বা আমাদের জীবনের তা হয় আমাদের কাজের আর বিশ্বাসের কারণে। সুতরাং, নিজেকে ভালবাসুন, ভালো কাজ করুন আর নিজের প্রতি বিশ্বাস রাখুন।

Leave a Reply

error: কপিরাইট প্রটেক্টেড !