fbpx

উগান্ডা : যে দেশটিকে আমরা তুচ্ছ করে দেখি

উগান্ডা দেশটি নিয়ে আমরা প্রায়ই মজা করে অনেক কথা বলি। একরকম তুচ্ছ করেই দেখি এই দেশটাকে। যদিও এ দেশটি সম্পর্কে আমাদের অনেকেরই কোনোরকম ধারণাই নেই। ব্যক্তিগতভাবে আমি উগান্ডা নিয়ে একটু বেশিই জানি। কারণ দীর্ঘসময় এখানে আমি কাটিয়ে এসেছি। তাই আজ উগান্ডা নিয়েই আমার জানা সব তথ্যগুলো লিখে ফেলবো নিজের অভিজ্ঞতা থেকে ! চলুন কম কথার মধ্যে জেনে নেয়া যাক উগান্ডা সম্পর্কে মজার কিছু তথ্য…

উগান্ডা (Uganda) একটা মুসলিম রাষ্ট্র। উগান্ডার মুদ্রার নাম হচ্ছে সিলিং। বাংলাদেশের সাথে তাদের মুদ্রার তফাৎ হচ্ছে, বাংলাদেশে ১ টাকা মানে উগান্ডার প্রায় ৩৩ টাকা ! উগান্ডা দারিদ্রযুক্ত একটি দেশ হলেও এদেশে বহিরাগতদের সংখ্য প্রায় চোখে পড়ার মত। বাংলাদেশ, ইন্ডিয়া, পাকিস্তান, নেপাল সহ আরো বিভিন্ন দেশের মানুষ এখানে কর্মসংস্থ‍ান ক্ষেত্রে এসে প্রবাস জীবন কাটায়।

উগান্ডায় আইন শৃঙ্খলা খুব কড়া বললেই চলে। তাদের আইন শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীরা সবসময় ভারী অস্ত্র নিয়ে চলাফেরা করে এবং দেশটিতে সবসময়ই তাদের হাতে ক্রিমিনালদের উপর ক্রাসফায়ারের অনুমতি থাকে।

উগান্ডার মানুষরা জন্মগতভাবে কালো জাতের। তাদের বডি লেঙ্গুয়েজ দেখে কিছুটা ভয়ও লাগে। তবে তারা খুব নরম মনের মানুষ হয়। তারা যেকোনো মানুষকে সহজেই বিশ্বাস করে। এবং সহজেই যে কারো সাথে মিশে যেতে পারে। অনেক হাসিখুশি ও রসিক মনের মানুষ হয় এরা !

উগান্ডার মানুষদের জাতীয় খাবার কলা আর ভূট্টা। তারা সাধারণত দিনে তিন বেলা কলা আর ভূট্টা খায়।েএর পাশাপাশি অন্যান্য নাস্তাও থাকে।

উগান্ডার মানুষেরা কোনো জিনিসের ওজন মাপাতে কিলোগ্রামের হিসাব করে না। ব্যাপারটা এমন যে, যেনো তারা কিলোর হিসাবটাই জানেই না বা জানলেও করে না। তাদের ওজন হিসাব করার জন্য দোকানে একটা নির্দিষ্ট বাটি থাকে। সেই বাটিতে করেই এক বাটি দুই বাটি হিসাব করা হয়।

উগান্ডা এমন একটা দেশ, যেখানে ফ্রি মাইন্ডে চলে সবাই। দেশটিতে অসংখ্য যৌনকর্মী পাওয়া যায়। জোর করে ধর্ষণ ছাড়া বাকি সব সম্পর্ক বৈধ বলে বিবেচনা করে সেই দেশের আইন। তবে এদেশে ধর্ষণের সংখ্যাও একেবারেই কম। উগান্ডায় প্রতিটি ঘরে এবং আবাসিক হোটেলে রুমের দরজার সামনে প্রটেকশন ব্যাগ (কনডম) রাখা বাধ্যতামূলক করে দিয়েছে সেই দেশের সরকার। প্রতি সপ্তাহে উগান্ডার এলাকাগুলোর সিটি কর্পোরেশন থেকে বাড়িতে বাড়িতে এই বিষয়ে চেক করতে আসে। যদি প্রটেকশন ব্যাগ বা কনডম প্রতিটা ঘরে এবং আবাসিক হোটেলের রুমের দরজায় পাওয়া না যায়, তাহলে সেই দেশের সরকারের আইন অনুযায়ী গুনতে হবে মোটা অংকের জরিমানা !

উগান্ডার মানুষ খুব মজা ও আনন্দের জীবন কাটাতে ভালোবাসে। তাদের সরকারি ছুটি দিন ধার্য করা হয়েছে শনিবার। সেই দিনটা তারা খুব আনন্দের সাথে কাটায়। ঠিক যেনো তাদের ঈদের দিন। পরিবার নিয়ে পিকনিক করে নাচ ও গান বাজনার মাধ্যেমে আনন্দে মেতে উঠে তারা।

‌উগান্ডা সম্পর্কে আরো কিছু তথ্য

  • উগান্ডার মানুষরা অতিথি পরায়ণ। আপনি একবার কোনো অপরিচিত এলাকায় ঘুরতে গেলে তারা নিজদায়িত্বে আপনার সেবা করতে এগিয়ে আসবে। যেনো আপনি যাদের বহুদিনের পরিচিত আত্মীয় ‍বা ঘরের অতিথি !
  • ২০১২ সালে সারা বিশ্বের সবচেয়ে সেরা ট্যুরিস্ট অ্যাট্রাকশন ছিলো উগান্ডা !
  • গাছ কাটা নিয়ে উগান্ডায় একটি নিয়ম আছে। উগান্ডায় একটি গাছ কাটলে একই সময়ে আরো তিনটি গাছ লাগাতে হয়।
  • কলা, আনারস ও আভোকাডো ফলনে উগান্ডা বিশ্বের প্রথমসারির দেশ।
  • উগান্ডায় প্রায় ৭৫০টি পাহাড়ি গরিলা রয়েছে ! অন্য কোনো দেশেই হাতেগোণ‍া কয়েকটার বেশি গরিলা নেই।
  • সৌন্দর্যের কারণে উগান্ডাকে আফ্রিকার মুক্তা (Pearl of Africa) বলা হয়।
  • উগান্ডিয়ানরা সাইকেল চালাতে ভালোবাসে।
  • পৃথিবীর সবচেয়ে বেশি অ্যালকোহলের রিজার্ভ রয়েছে উগান্ডায় !
  • উগান্ডার ৫০% জনসংখ্যার বয়সই ১৪ বছরের নিচে। অর্থাৎ উগান্ডায় এখন পর্যন্ত বিশ্বের সবচেয়ে তরুণ দেশ !
  • উগান্ডায় গেলে কেউ যদি আপনাকে তেলে ভাজা ঘাসফড়িং খেতে দেয়, তাহলে বুঝবেন আপনি তার স্পেশাল গেস্ট। শুধুমাত্র বিশেষ বিশেষ মানুষদের জন্যই তারা এই আইটেমটি রান্না করে !

উগান্ডার সমুদ্র সৈকত পৃথিবীর অন্যতম বৃহত্তম সমুদ্র। কয়েকটা দেশের সাথে যৌথ এই সমুদ্রের পাড়ের পরিবেশটা হৃদয় কেড়ে নেয়ার মত। উগান্ডার সৌন্দর্যের কথা মুখে বলে শেষ করা যাবে না। উপভোগ করতে চাইলে নিজের চোখেই দেখতে হবে।

খুব সুন্দর একটা দেশ উগান্ডা ! সেই সাথে সুন্দর এই দেশটির মানুষদের মনও…

Leave a Reply

error: কপিরাইট প্রটেক্টেড !