fbpx

শুনলাম, দেখলাম ! এক হারে অনেকের লজ্জায় কেটেছে নাক

প্রশ্ন তুললে আমিনুল ইসলাম বুলবুলের দিকে তোলেন। প্রথম টেস্টেই সেঞ্চুরি করে কি এমন হলো, যার জন্য ১৩ টেস্ট খেলে মাত্র ২১ গড়ে রান করে ক্যারিয়ার শেষ করেছেন। বাংলাদেশের প্রথম টেস্ট ম্যাচের ক্যাপ্টেন দুর্জয়কে জিজ্ঞেস করেন, কেনো ৮ টেস্ট খেলে মাত্র ১৫ গড়ে রান করে ক্যারিয়ার শেষ করলেন, নেই কোনো হাফ সেঞ্চুরি, সেঞ্চুরি তো দূরে থাক। ৪০ টেস্ট খেলা ওপেনার জাভেদ ওমরকে ডেকে জিজ্ঞেস করেন, কেনো মাত্র ২২ গড়ে ক্যারিয়ার শেষ করছেন।

আফগানিস্তান মাত্র তৃতীয় টেস্ট ম্যাচেই বাংলাদেশকে হারালো এজন্য যাদের লজ্জায় নাক কেটে যাচ্ছে, তাদের একটু বলি- দশ বছর পর যেসব আফগানরা ক্রিকেট খেলতে আসবে, তাদের অনুপ্রেরণা বলেন, আদর্শ বলেন যাদের নাম বলবে, তারা হলো- মোহাম্মদ নবী, রশিদ খান, রহমত শাহ সহ মাত্র তৃতীয় টেস্ট খেলা এই এগারো জন ক্রিকেটারদেরকে।

আর বাংলাদেশ? কাগজে-কলমে ১৯ বছর বাংলাদেশের টেস্ট খেলার বয়স হলেও এতো বছর বাংলাদেশের হয়ে টেস্ট খেলেছে গড়পড়তা পারফর্মাররা। তা অস্বীকার করার উপায় আছে কী? এজন্য আজকের দিনে একজন তরুণ ক্রিকেটার জাতীয় দলে ঢুকে সাকিব কিংবা বড়জোর মুশফিক, তামিম, মাশরাফীর মতো ক্রিকেট খেলতে চায়। কিন্তু এক সাকিব ছাড়া বাকীদের পারফরমেন্স কেমন? বিশ্বের অন্যান্য ক্রিকেটারদের সঙ্গে তুলনা করতে গিয়ে পরিসংখ্যানের পাল্লায় তাদের নামটা যে পড়ে যায় অতল গহ্বরে! তা দেখে লজ্জা হয় না, লজ্জা হয় আফগানদের বিপক্ষে হেরে গেলে! নাকি অনেককিছু দেখেও না দেখার ভান করে থাকা?

১৯ বছর ক্রিকেট খেললেও একটা দলে এখনো মাত্র ৫ জন ক্রিকেটারের জন্ম দিতে পারেনি যাদের আদর্শ মনে করে তরুণরা ক্রিকেট খেলতে আসবে।

তাইলে এক আফগানদের কাছে হেরে এতো লজ্জা পাচ্ছেন কেনো? কবে ভালো টেস্ট খেলে বাংলাদেশ দল অনেক ইজ্জত অর্জন করেছে, যে আজকের হারে লজ্জায় মাথা মাটিতে লুটিয়ে পড়ছে। আফগানিস্তান ভালো ক্রিকেট খেলে জিতেছে, সাকিব আল হাসান তার সেরা পারফর্ম করতে পারেনি, তাই বাংলাদেশ হেরেছে। এতে এতো লজ্জার কিছুই নেই, বাংলাদেশ ক্রিকেট শেষ হয়েও যায়নি। যেখানে ছিলো সেখানেই আছে। আবার একদিন সাকিব একাই পারফর্ম করে জেতাবে সেদিন বাংলাদেশ জিতবে।

এক রশিদ খানের কাছে হেরে যাওয়া! তাকে নিয়ে ফেসবুক পাড়ায় ট্রলের তো কমতি ছিলনা। তবে আজ তার অধিনায়কোচিত পারফরমেন্সের পর তাএ প্রশংসার বানে ভাসাতে অসুবিধে কোথায়? নাকি হেরে নাক কেটে যাওয়ায় প্রতিপক্ষের কাউকে প্রশংসিত করা যাবেনা?

আজকে সাকিব বলেছেন, ‘নামমাত্র ক্যাপ্টেন হিসাবে থাকতে চাই না’৷ সাকিবের হাতে যদি পুরো ক্ষমতা দিয়ে ক্যাপ্টেন্সি দেয়, তাইলে সাকিব ক্যাপ্টেন্সি করুক৷ এতে দলের মঙ্গল, সবার মঙ্গল।

অনেকগুলো প্রশ্ন এসে যায়! আয়নার সামনে দাঁড়ালে কিংবা টিনের চশমা না পড়ে থাকলে প্রশ্নগুলো দৃশ্যমান হবে এবং জবাবও মিলবে। এদেশের ক্রিকেটের অবস্থান কোথায়? তা কে নিয়ে এসেছে? জবাব আপনার কাছেই, আপনারও জানা। আজ নাক কাটা গেছে বলে লজ্জায় বলছেন না?

error: Content is protected !!