যে জিনিসগুলো শুধুমাত্র আমেরিকাতেই খুঁজে পাওয়া যায় !

আমেরিকা

প্রতিট‍া দেশেরই নিজস্ব কিছু বৈশিষ্ট্য আছে। আমেরিকাও তার ব্যতিক্রম নয়। বরং বৈচিত্রতা সেখানে একটু বেশিই লক্ষ্য করা যায়। আমাদের দেশের টিভি চ্যানেলগুলোয় আমরা শুধু খাবার দাবার আর ব্যবহারযোগ্য জিনিসগুলোর বিজ্ঞাপন দেখি। কিন্তু আমেরিকান টিভি চ্যানেলগুলোয় খেলাধুলায় উৎসাহ জোগানো থেকে শুরু করে মাদকদ্রব্যের বিজ্ঞাপনও পর্যন্ত দেখায় যায়। এই বিষয়গুলো শুধু যুক্তরাষ্ট্রেই সম্ভব ! এরকমই কিছু অদ্ভুত ও বৈচিত্রময় বিষয়গুলো নিয়ে আজকে আমরা কথা বলবো, যে জিনিসগুলো শুধুমাত্র আমেরিকাতেই খুঁজে পাওয়া যায় !

কলেজ স্পোর্টস দেখতে দর্শকদের ভিড়

আমাদের দেশে আমরা এক্সট্রা কারিকুলার এক্টিভিটিজ নিয়ে খুব একটা ভাবিনা। কিন্তু আমেরিকার অবস্থা একেবারেই উল্টো। সেখানে স্কুল কলেজে পড়ালেখার পাশাপাশি খেলাধুলাকেও (কলেজ স্পোর্টস) গুরুত্ব দেয়‍া হয়। ছাত্রছাত্রীদের খেলাধুলা দেখতে আমেরিকায় হাজারো দর্শক টিকিট কেটে উপস্থিত হয়। যদিও স্পোর্টস জগতে তাদের সফলতা খুবই কম !

ওষুধের বিজ্ঞাপন

একমাত্র আমেরিকান টিভি চ্যানেলগুলোতেই ওষুধের বিজ্ঞাপন দেখানো হয়। ব্যাপারটা এমন না যে, রোগীরা টিভির অ্যাড দেখে ওষুধ কিনে খান। ডাক্তাররা তাদের পরামর্শ মতই রোগীদের ওষুধ দেন। তবে কোন ওষুধটা কেমন, এবং কি কাজে ব্যবহার হতে পারে, বিজ্ঞাপন দেখে রোগীরা সে সম্পর্কে ধারণা পান। তাই ভুল ওষুধে রোগী মারা যাবার সংখ্যাটাও সেখানে কম !

একদিনেই অনলাইন ডেলিভারী

বেশিরভাগ দেশগুলোতেই এখনো এই সুবিধা আসেনি। আমাদের দেশে আমরা অনলাইনে কোনো প্রোডাক্ট অর্ডার করলে সাধারণত দুই থেকে তিনদিনের মধ্যে প্রোডাক্ট হাতে পাই। কিন্তু আমেরিকায় অর্ডার করার দিনই ক্রেতাদের বাসায় প্রোডাক্ট পৌঁছে যায়।

পনিরের স্প্রে
পনিরের স্প্রে

স্প্রে চিজ (পনির)

ফাস্টফুডে বার্গার খেতে গেলে আপনি নিশ্চয়ই বার্গারের সাথে চিজ খেতে পছন্দ করেন। চারকোণা হলুদ বা সাদা এক টুকরো পনির বার্গারের মাঝে সেটে দেয়া হয়। আমেরিকায় এই চিজ স্প্রে আকারে পাওয়া যায়। বডি স্প্রে’র মত দেখতে টিনের কোটায় এই স্প্রে চিজ বিক্রয় করা হয়। এটি অনেকটা ক্রিমের মত।

২৪ আওয়ার স্টোর

‘সুবিধা’ আমেরিকার সবচেয়ে বড় বস্তু। আমেরিকায় আপনি প্রতিটি পদে পদে সুবিধা পাবেন। এটিএম থেকে শুরু করে ফাস্টফুড, মুদি দোকান সবকিছুই এখানে ২৪ ঘন্টা খোলা থাকে। অন্যান্য দেশে ১২টার মধ্যেই সব দোকানপাট বন্ধ হয়ে যায়। হাতেগোণা কিছু দোকান হয়ত খোলা থাকে। কিন্তু আমেরিকা এদিক থেকে ব্যতিক্রম।

সাদা পাউরুটি

ট্যুরিস্টটা আমেরিকায় গেলে সাদা পাউরুটি খেয়ে একটু অবাক হবেনই। পৃথিবীর সবচেয়ে মিষ্টি রুটি বলা হয় এই হোয়াইট ব্রেড বা সাদা পাউরুটিকে। আমাদের দেশের মানুষকে এই রুটি খেতে দেয়া হলে আমরা দুই কামড়ের বেশি খেতেই পারবোনা। কিন্তু আমেরিকানদের কাছে এই রুটি ডালভাত। জন্মদিনের কেকের চেয়েও বেশি মিষ্টি এই পাউরুটি দিয়েই আমেরিকানদের দুই বেলা ‍নাস্তা চলে।

হাউ আর ইউ?

আমেরিকায় হঠাৎ ঘুরতে গেলে হাউ আর ইউ শুনতে শুনতে আপনি বিরক্ত হয়ে যেতে পারেন। কারণ সেখানকার দোকানগুলোর সেলস ম্যান থেকে ‍শুরু করে পিজ্জাবয় পর্যন্ত সবাই কারো ‍সাথে কথা বলার শুরুতেই এই প্রশ্নটি করে থাকেন। আরেকটু সহজভাবে বললে, আমেরিকানরা Hello এর বদলে শুভেচ্ছা/অভিবাদন হিসেবে How are you ব্যবহার করেন।

সন্তান হিসেবে পশু পালন

বিভিন্ন দেশের ‍কালচারেই পশুপাখির আলাদা গুরুত্ব রয়েছে। তবে আমেরিকায় তা একটু বেশিই। এখানে বিড়াল কুকুরের মত পোষা প্রাণীদের পরিবারের সন্তানের চোখে দেখা হয়। দেশটিতে এই প্রাণীগুলোর চিকিৎসা, স্পা, পরিচর্যার জন্য পেট ইন্ড্রাষ্টিজ গড়ে উঠেছে।

১৬৯ মিলিয়ন ছুটির দিন

আমেরিকানদের মোট ১৬৯ মিলিয়নের মত বিশেষ দিবস রয়েছে, যে দিনগুলোয় চাইলে ‍আমেরিকানরা ছুটি কাটাতে পারেন। কিন্তু বেশিরভাগ আমেরিকানরাই ছুটি কাটাতে অপছন্দ করেন। তারা ছুটির কথা না ভেবে নিয়মিত কাজে যান। বিশ্বের আর কোনো দেশে এত বিশাল পরিমাণ ছুটির দিবস নেই !

Comments

comments

SHARE