পানামা : ধনী হতে যে দেশটিতে যেতে পারেন !

পানামা

উত্তর আমেরিকা মহাদেশের দক্ষিণাংশের একটি দেশ পানামা । উত্তর ও দক্ষিণ আমেরিকার সংযোগস্থলে অবস্থিত এই দেশটি পূর্বে কলম্বিয়ার অধীনস্ত ছিলো। পানামার রাজধানীর নাম পানামা সিটি। পানামাতে আটলান্টিক মহাসাগর ও প্রশান্ত মহাসাগর এর সংযোগকারী বিখ্যাত পানামা খাল অবস্থিত।

পানামা দেশটির নামডাক আমরা কম শুনেছি। কিন্তু জেনে অবাক হবেন এই পানামা থেকেই উঠে এসেছে বিশ্বের বিভিন্ন দেশের নামীদামী কিছু প্রভাবশালী ব্যবসায়ী‍রা। যাদেরকে বলা হয় টাকার কুমির। পানা‍মা গিয়ে অফসোর বিজনেস নিয়ে প্রতিষ্ঠিত হয়েছেন অনেক মানুষ। ‌এতটাই ক্ষমতার অধিকারী হয়েছেন তারা, ছোটখাট একটা দেশ চালানোর ক্ষমতাও রাখেন ! যদিও কেউই আর পানামার দিকে ফিরেও তাকাননি কখনো…

চলুন জেনে নেয়া যাক পানামা সম্পর্কে কিছু অদ্ভুত তথ্য !

  • পানামা পৃথিবীর একমাত্র দেশ, যেখান থেকে প্রশান্ত মহাসাগরে সূর্যোদয় দেখা যায় এবং সেই সূর্য অস্ত যায় আটলান্টিকের বুকে !
  • পানামা ক্যানেল বা পানামার খাল দেশটির পুরো অর্থনীতির তিনভাগের একভাগ নিয়ন্ত্রণ করে !
  • পানামা ল্যাটিন আমেরিকার প্রথম দেশ, যাদের নিজস্ব কোনো মুদ্রা নেই। এরা আমেরিকার কারেন্সি ব্যবহার করে।
  • পানামার রাজধানীই পৃথিবীর একমাত্র রাজধানী শহর, যার মধ্যে একটি রেইনফরেস্ট রয়েছে।
  • পানামার লোকেরা দুইটা স্বাধীনতা দিবস পালন করেন। প্রথমটা ১৮২১ সালে স্পেন থেকে স্বাধীন হওয়া উপলক্ষে। এবং দ্বিতীয়টা ১৯০৩ সালে কলম্বিয়া থেকে স্বাধীনতা লাভ উপলক্ষে !
  • পানামা রেইলরোর্ড নির্মাণের সময় ১২ হাজারেরও বেশি মানুষ মারা যায়।
  • পানামার অবস্থান হ্যারিকেন অ্যালির দক্ষিণে। তাই এ দেশটিতে কোনোরকম প্রাকৃতিক দুর্যোগ হয়না। ইন্টারনেটের খ্যাতনামা কোম্পানির হোস্টিংয়ের বড় বড় সার্ভারগুলোই তাই পানামায় বসানো ! অন্য শব্দে বলা যায়, পুরো ইন্টারনেট দুনিয়াই একরকম নিয়ন্ত্রণ করে পানামা !
  • পানামায় ৯৭৬ রকমের পাখি এবং ১০হাজার রকমের উদ্ভিদ রয়েছে।
  • পানামায় বাইরের দেশের যে কেউ গিয়ে জায়গা কিনে দালান বানাতে পারবেন এবং ব্যবসাকেন্দ্রও প্রতিষ্ঠা করতে পারবেন। এর উদাহরণ হতে পারেন বাংলাদেশের সবচেয়ে ধনী ব্যক্তি প্রিন্স মুসা !

পানামা সম্পর্কে লিখতে গেলে আরো অনেক গুরুত্বপূর্ণ তথ্য লিখা যাবে, যার মধ্যে একটি হচ্ছে পানামা পেপারস ! সারাবিশ্বকে কা‍ঁপিয়ে দিয়েছিলো টাকার কুমিরদের যে দলিলটি। খুব শীঘ্রই এ নিয়েও আমরা লিখে ফেলবো। ধন্যবাদ…

Comments

comments

SHARE